Saturday , 10 February 2024 | [bangla_date]
  1. অপরাধ
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. জাতীয়
  5. পর্যটন
  6. বিনোদন
  7. বিশেষ সংবাদ
  8. বৃহত্তর চট্রগ্রাম
  9. মুক্তমত
  10. লাইফস্টাইল
  11. শিক্ষা
  12. সংগঠন
  13. সাক্ষাৎকার
  14. সারা বাংলা
  15. সিলেট

বর্নাট্য জীবনের অবসান ঘটিয়ে না ফেরার দেশে টুনু মিয়া চৌধুরী

প্রতিবেদক
Rafiq
February 10, 2024 4:36 pm

আলোকিত গোয়াইনঘাট :–বর্নাট্য জীবনের অবসান ঘটিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন টুনু মিয়া চৌধুরী।  আব্দুল হান্নান চৌধুরী ১৯৩৪ সালে ৫ জানুয়ারি সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার নন্দিরগাওঁ ইউনিয়নের নওয়াগাওঁ গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা আব্দুল মতিন চৌধুরী ছিলেন, অবিভক্ত নন্দিরগাওঁ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং মা সৈয়দা আলিমা খাতুন ছিলেন গৃহনী। পরিবারের গণ্ডি ছাড়িয়ে তিনি মানবসেবার মাধ্যমে আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য দিবানিশি কাজ করে গেছেন। তিনি চলার পথে সর্বদা মানুষের আপদে-বিপদে সহায়তা ও সহমর্মিতার পরিচয় দিয়েছেন। তাঁর সমগ্র জীবনে সাহায্যপ্রার্থীর প্রতি অকৃপণভাবে হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া জাগদলে একজন নেতৃস্থানীয় নেতা ছিলেন। পরবর্তীতে নন্দিরগাওঁ ইউনিয়ন বিএনপির প্রতিষ্টাতা সাধারণ সম্পাদক ও গোয়াইনঘাট উপজেলা বিএনপির প্রতিষ্টাতা সহসভাপতি হিসেবে দীর্ঘদিন সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করেন। নওয়াগাওঁ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিতে একাধারে ৩০ বছর সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও আঙ্গারজুর আলিম মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিসেবে সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮০ সালের ২৪ মে প্রেসিডেন্ট জিয়া প্রতিটি গ্রাম সরকার গঠনের উদ্যোগ নেয়ার পর থেকে আব্দুল হান্নান চৌধুরী নন্দিরগাওঁ ইউনিয়নের গ্রাম সরকার প্রধান এবং গোয়াইনঘাট উপজেলার গ্রামসরকার প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে সিলেট জেলা গ্রাম সরকারের-৪ (চার) সদস্য বিশিষ্ট কমিটিতে কোষাধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬৫ সালে তার পিতা আব্দুল মতিন চৌধুরী  গোয়াইনঘাট উপজেলার অবিভক্ত নন্দিরগাওঁ ইউনিয়ন (বর্তমান নন্দিরগাওঁ, তোয়াকুল ও দক্ষিণ রণীখাই) পরিষদের চেয়ারম্যান  থাকাকালীন সময়ে তিনি সরকার নমনী ইউপি সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সরকার নমনী ইউপি সদস্য থাকার সুবাদে এসময় তার পিতা চেয়ারম্যান

 আব্দুল মতিন চৌধুরীর নেয়া বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ ও সালিসি বৈঠকে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রেখেছেন।। তিনি প্রায় ৫ যুগের অধিক সময় ধরে নওয়াগাওঁ মাঝপাড়া জামেমসজিদ ৫ ওয়াক্ত আযান দিয়েছেন এবং মোতাওয়াল্লীর দায়িত্ব পালন করেছেন। আব্দুল হান্নান চৌধুরীর প্রয়াত অর্থ ও পরিকল্পনা মন্ত্রী এম সাইফুর রহমান ও সাবেক এমপি নাজিম কামরান চৌধুরীর সাথে অত্যন্ত আন্তরিক সম্পর্ক ছিল। আব্দুল হান্নান চৌধুরীর ব্যক্তিগত জীবনে দুই ছেলের জনক। তার বড় ছেলে নন্দিরগাওঁ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক  চেয়ারম্যান ছিলেন। এছাড়াও গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের দুইদুই বারের সাবেক  নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন।

তার সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড এবং একজন ইসলামি মুল্যবোধের মানুষ হিসেবে সিলেট জেলাজুড়ে স্বজন ব্যাক্তি হিসেবে পরিচিতি ছিলেন।

 তার জানাযায় হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতি সেটাই প্রমান করে। আব্দুল হান্নান চৌধুরী টুনু মিয়া গত ৫ জানুয়ারি বার্ধক্য জনিত কারণে মৃত্যু বরণ করেন। গোয়াইনঘাট উপজেলার দশগাওঁ নয়াগাঁও উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে জানাযা নামাজ শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে পিতামাতার কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।

সর্বশেষ - অপরাধ

আপনার জন্য নির্বাচিত

সিলেট ০৪ আসনে প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ, , কুড়ি ছুইছুই

পাঁচসেউতি বাজার ট্রাক সমিতির নির্বাচন আলম সভাপতি, দেলোয়ার সম্পাদক

ওসির ১৮ কোটি টাকার সম্পদে ফাঁসলেন স্ত্রী-শাশুড়ি

স্বপ্নের দেশ কানাডাতে গোয়াইনঘাটের উদীয়মানদের চা চক্র

এবার প্রাবাসে(গোয়াইনঘাট) আওয়ামীলীগের যাত্রা শুরু

সংক্ষিপ্ত সফরে মালয়েশিয়া যাচ্ছেন সাংবাদিক ইসমাইল হোসেন

বর্নাট্য জীবনের অবসান ঘটিয়ে না ফেরার দেশে টুনু মিয়া চৌধুরী

গোয়াইনঘাটে পুলিশের অভিযানে ভারতীয় মদ সহ গ্রেফতার ০১।

সিলেটে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সমিতি’র আহবায়ক কমিটি ঘোষণা

গোয়াইনঘাট উপজেলা শ্রমিকদলের কমিটি অনুমোদন, জলিল সভাপতি, সালাম সম্পাদক, সুরমান সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত